মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C

বিনাজুরী নবীন স্কুল এন্ড কলেজ

  • সংক্ষিপ্ত বর্ণনা
  • প্রতিষ্ঠাকাল
  • ইতিহাস
  • প্রধান শিক্ষক/ অধ্যক্ষ
  • অন্যান্য শিক্ষকদের তালিকা
  • ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা (শ্রেণীভিত্তিক)
  • পাশের হার
  • বর্তমান পরিচালনা কমিটির তথ্য
  • বিগত ৫ বছরের সমাপনী/পাবলিক পরীক্ষার ফলাফল
  • শিক্ষাবৃত্ত তথ্যসমুহ
  • অর্জন
  • ভবিষৎ পরিকল্পনা
  • ফটোগ্যালারী
  • যোগাযোগ
  • মেধাবী ছাত্রবৃন্দ

বিনাজুরী নবীন স্কুল এণ্ড কলেজ রাউজান উপজেলার অন্তর্গত ৬ নং বিনাজুরী ইউনিয়নের বিনাজুরী গ্রামে অবস্থিত। বর্তমানে মোট কক্ষ সংখ্যা ২৫। শিক্ষক/শিক্ষিকা সংখ্যা ২২ জন এবং শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৬১৮ জন। বিদ্যালয়টি বিগত কয়েক বছরের জে.এস.সি এবং এস.এস.সি পরীক্ষার ফলাফল মোটামুটি সন্তোষজনক। বিগত ২০১৩ সন হতে এ বিদ্যায়টি  একাদশ শ্রেনীতে উন্নীত হয়ে স্কুল এণ্ড কলেজে পরিণত হয়েছে।

১৯৪৬ ইংরেজী।

১৯৪৬ইংরেজী কোন এক শুভলগ্নে এই বিদ্যাপীঠ বিনাজুরী নবীন উচ্চ বিদ্যালয় হিসেবে নিজ অস্তিত্ব প্রতিষ্ঠা লাভ করে। সৃষ্টির পঠভূমি আলোচনা করতে গেলে বলতে হয় ১৯১৪ সালে প্রতিষ্ঠিত এম.ই স্কুলই উচ্চ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার প্রেরণার উৎস। তৎকলীন সময়ে এলাকার নবীন ও প্রবীণ ব্যক্তিবর্গ বিশেষভাবে উপলব্ধি করেছেন। শিক্ষা বিস্তারের একমাত্র এম.ই স্কুল ব্যতীত অন্য কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান না থাকায় দূরাঞ্চলে অবস্থিত উচ্চ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠায় যে স্বপ্ন রচনা করেছিলেন সে স্বপ্নকে বাস্তবায়িত করার কর্ণধার হিসেবে এগিয়ে এলেন এতদঞ্চলের প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী, শিক্ষাকাজে নিবেদিত প্রাণ স্বর্গীয় মহেন্দ্রলাল সরকার মহোদয়। যিনি নিজ খরচে ও ভূমিকায় তারই পিতৃব্য স্বনামধন্য তৎকালীন সময়ের জমিদার ও বীর বিপ্লবী হরিপদ সরকারের পিতা স্বর্গীয় নবীন চন্দ্র মহাজনএর নামে নামকরণে স্বর্গীয় মহেন্দ্র বাবু এক অনাবিল উদারতার পরিচয় দিয়েছেন। বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠালগ্নে যারা অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছিলেন ঊনার হলেন ডা. জয়মোহন চৌধুরী, সুধাংশু মিলন চৌধুরী, ডা. রেবতী মুহুরী, মরহুম আবদুল খালেক চৌধুরী, সতীশ চন্দ্র চৌধুরী প্রমূখ আরও কয়েকজন সমাজদরদী ও শিক্ষানুরাগী ব্যক্তিবর্গ। ঊনাদের নিজ অবদানের জন্য বিদ্যালয়ের ইতিহাসে যুগ যুগ স্মরণীয় হয়ে রয়েছেন। যদিও  প্রতিষ্ঠালগ্নে মতদ্বৈততার করণে দুটি বিদ্যালয় স্থাপিত হলেও বৃহত্তর চিন্তাধারায় অভিষিক্ত দরদী ব্যক্তিবর্গ উভয় পক্ষের মিলনের মাধ্যমে সহযোগীতার হস্থ প্রসারণ পূর্বক বিদ্যালয় দুটিকে একত্রীভূত করে বর্তমান প্রতিষ্ঠানকে গড়ে তোলবার ব্রতে নিয়োজিত হলেন। স্থানীয় ব্যক্তিবর্গের এ প্রয়াসকে সরকারী পর্যায়ে রূপদান করে স্মরণীয় ও বরণীয় হয়েছেন তৎকালীন কলিকাতা বিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক, চট্টগ্রামের গৌরব, চট্টগ্রাম জেলার বোয়ালখালী নিবাসী স্বর্গীয় ডা. বি.বি. দত্ত। ঔনারাই সহযোগীতায় ১৯৪৭ সালে প্রথম বারের মত এ বিদ্যালয়ের ছাত্ররা ম্যাট্টিকুলেশান পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে কৃতিত্বের পরিচয় প্রদান করেন। এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের আশা ছিল বিদ্যালয়টি একাদশ শ্রেনীতে রূপান্তরিত হউক। বিগত ২০১৩ ইংরেজী সনে কলেজে উন্নীত করার উদ্যোগ নেন । রাউজান থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য বিশিষ্ট রাজনীতিবীদ, আধুনিক রাউজানের রূপকার, রেল মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি জনাব এ.বি.এম. ফজলে করিম চৌধুরী মহোদয়ের ঐকান্তিক প্রচেষ্ঠায় ২০১৩ সনে কলেজে উন্নীত হয়ে বর্তমানে নাম করণ করা হয়েছে বিনাজুরী নবীন স্কুল এণ্ড কলেজ।

ছবি নাম মোবাইল ইমেইল
অমর কান্তি দত্ত ০১৮১৪৮০৫৭৬৭ Smabdullah777@gmail.com

ছবি নাম মোবাইল ইমেইল

শ্রেনী

ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা

ষষ্ঠ (ক)

৫৯

ষষ্ঠ (খ)

৬৭

সপ্তম (ক)

৬৩

সপ্তম (খ)

৬৭

অষ্টম (ক)

৬২

অষ্টম (খ)

৫৬

নবম (ক)

৫৭

নবম (খ)

৭৩

দশম (ক)

৬১

দশম(খ)

৫৩

৯১.২২%

ক্রম

            নাম

       সদস্য

০১

বাবু অরুন কান্তি সরকার এডভোকেট

     সভাপতি

০২

বাবু অমর কান্তি দত্ত

অধ্যক্ষ/সম্পাদক

০৩

জনাব আজিজ উদ্দীন

অভিভাবক সদস্য

০৪

বাবু শচীনাথ শীল

অভিভাবক সদস্য

০৫

বাবু সাধন চন্দ্র বড়ুয়া

অভিভাবক সদস্য

০৬

মিসেস গীতা দত্ত

অভিভাবক সদস্যা

০৭

বাবু প্রভাষ চন্দ্র ধর

শিক্ষক প্রতিনিধি

০৮

জনাব সৈয়দ মোহাম্মদ আবদুল্লাহ

শিক্ষক প্রতিনিধি

০৯

মিসেস দীপ্তি চক্রবর্তী

শিক্ষক প্রতিনিধি

এস.এস.সি

 

সন

মোট পরীক্ষার্থী

বিজ্ঞান উত্তীর্ন

মানবিক উত্তীর্ণ

 বানিজ্য উত্তীর্ন

মোট উত্তীর্ন

পাশের হার

 

২০০৮

৭২

১০

০৬

২৫

৪১

৫৭%

২০০৯

১৩২

১০

০২

৩৪

৪৬

৩৫%

২০১০

১১৭

১৩

০৩

৫৯

৭৫

৬৪%

২০১১

১২২

০৫

২০

৪৬

৭১

৫৮.১৯%

২০১২

১৫১

১৩

০৭

৭৭

৯৭

৬৪.২৩%

২০১৩

১২৫

১৬

০৬

৯০

১১২

৯০%

২০১৪

১১৪

১২

১১

৮১

১১২

৯২%

 

জে.এস.সি

 

২০১০

১০৪

 

 

 

৫৯

৫৭%

২০১১

১১৯

 

 

 

৭৯

৬৬%

২০১২

১৫০

 

 

 

১২৫

৮৩%

২০১৩

১১০

 

 

 

১০১

৯২%

জুনিয়র বৃত্তিপ্রাপ্ত ছাত্র-ছাত্রীদের নামঃ

০১.    জুয়েল চৌধুরী                            ১৯৯৫

০২.    মোহাম্মদ জাহেদুল ইসলাম          ১৯৯৮

০৩.   সবুজ মনোহর শর্মা                     ২০০৩

০৪.    অভিজিত বড়ুয়া                         ২০০৩

০৫.   তন্বী চৌধুরী তপা                        ২০০৬

০৬.   সুইটি শর্মা                                ২০০৬

০৭.    ইতি বড়ুয়া                               ২০০৬

০৮.   রাজিব দাশ শুভ                          ২০০৮

০৯.   ঝিনু চৌধুরী                               ২০০৮

১০.    সুমিত চৌধুরী জয়                      ২০০৯

১১.    সৌরভ বিশ্বাস                            ২০১০

ক. বাংলাদেশ জাতীয় স্কুল মাদ্রাসা গ্রীস্মকালীন ফুটবল প্রতিযোগীতা ১৯৯৪ চ্যাম্পিয়ন।

খ. বাংলাদেশ জাতীয় স্কুল মাদ্রাসা গ্রীস্মকালীন ফুটবল প্রতিযোগীতা ১৯৯৭ রানার্স আপ,রাউজান উত্তর।

গ. বাংলাদেশ জাতীয় স্কুল মাদ্রাসা গ্রীস্মকালীন ক্রিকেট প্রতিযোগীতা ২০০৯ চ্যাম্পিয়ন।

ঘ. বাংলাদেশ জাতীয় স্কুল মাদ্রাসা গ্রীস্মকালীন ফুটবল প্রতিযোগীতা ২০০৫ রানার্স আপ,রাউজান উত্তর।

ঙ. আঞ্চলিক স্কুল ও মাদ্রাসা ক্রীড়া প্রতিযোগীতা ১৯৯৫ চট্টগ্রাম অঞ্চলে ব্যক্তিগত চ্যাম্পিয়ন।

চ. আঞ্চলিক স্কুল ও মাদ্রাসা ক্রীড়া প্রতিযোগীতা ১৯৯৬চট্টগ্রাম অঞ্চলে ব্যক্তিগত চ্যাম্পিয়ন।

ছ. বালকদের হ্যণ্ডবল প্রতিযোগিতা ২০০১ চ্যম্পিয়ন,রাউজান উত্তর।

জ. রানার্স আপ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট।

ঝ. রাউজান উপজেলায় ফুটবল প্রতিযোগীতায় সুশৃংখ দল হিসেবে প্রাপ্ত।

ঞ. রাউজান উপজেলায় ফুটবল প্রতিযোগীতায় চ্যাম্পিয়ন ট্রপি।

ট. সাতার প্রতিযোগীতায় ২০০৪ বালক বড় দলে চ্যাম্পিয়ন।

ঠ. রাউজান উত্তর ফুটবল চ্যাম্পিয়ন ২০০৪।

ড.রাউজান ছাত্রীদের হ্যণ্ডবল প্রতিযোগীতায় রানার্স আপ।

ন.রাউজান উপজেলায় কাবাডি (ছাত্র) রানার্স আর্প।

প. ৪৩ তম জাতীয় স্কুল ও মাদ্রাসা ফুটবল প্রতিযোগীতা ২০১৪ উপজেলা চ্যাম্পিয়ন।

বিনাজুরী নবীন স্কুল এণ্ড কলেজ,চট্টগ্রাম জেলাধীন রাউজান উপজেলার একটি সুপ্রতিষ্ঠিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এটি শুধু পাঠক্রমের মধ্যে সীমাবদ্ধ নহে,এটি সহপাঠক্রমিক কার্যাবলিত ও গুরুত্বপূর্ন ভূমিকা পালন করছে। ভবিষ্যতে এটি রাউজান উপজেলার একটি আদর্শ প্রতিষ্ঠান হিসাবে সম্বৃদ্ধি লাভ করবে।

চট্টগ্রাম শহর থেকে রাঙ্গমাটি সড়কস্থ রাউজান উপজেলা সদর নেমে দক্ষিনে ৪ কি.মি কাগতিয়া বাজার সংলগ্ন অথবা চট্টগ্রাম শহর থেকে কাপ্তাই সড়কস্থ নোয়াপাড়া পথের নেমে উত্তরে ৬ কি.মি. কাগতিয়া বাজার সংলগ্ন  বাংলাদেশে একমাত্র প্রাকৃতিক মৎস্য প্রজনন ক্ষেত্র হালদা নদীর পার্শ্বস্থ গ্রাম বিনাজুরীতে অবস্থিত।

পরীক্ষার নাম

সন

ছাত্র-ছাত্রীর নাম

প্রাপ্ত গ্রেড/জিপিএ

জে.এস.সি

২০১৩

০১. মৌমিতা বড়ুয়া

০২.সাবিত্রী বড়ুয়া

৫.০০

৫.০০

এস.এস.সি

২০১০

০১. রাজিব দাশ শুভ

৫.০০

এস.এস.সি

২০১১

০১. সুমিত চৌধুরী জয়

০২. সজিব মহাজন

৫.০০

৫.০০

 

এস.এস.সি

২০১৪

০১. মৃত্তিকা দাশ

০২. রিয়া চৌধুরী

০৩. লাবন্য বড়ুয়া

০৪. সৌকত বড়ুয়া

০৫. তওসিফ বিন লোকমান

৫.০০

৫.০০

৫.০০

৫.০০

৫.০০